আপনার কি সত্যিই ভিপিএস হোস্টিং এর প্রয়োজন রয়েছে?

আপনার কি সত্যিই ভিপিএস হোস্টিং এর প্রয়োজন রয়েছে?

আপনি যদি একজন ওয়েবসাইটের মালিক হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে নিশ্চয় ভিপিএস হোস্টিং এর নাম শুনেছেন। বেশিরভাগ ব্লগ পোস্ট আর কারো কাছে জিজ্ঞাসা করলে এক কথায় উত্তর দিয়ে দেবে, আপনার সাইটের যদি ভিজিটর বেড়ে যায় সেক্ষেত্রে ভিপিএস হোস্টিং কিনতে হবে। — কিন্তু এই কথাটা কতোটা সত্য?

দেখুন, সঠিক ভিপিএস হোস্টিং কেনা অনেক মুশকিলের চয়েজে পরিণত হতে পারে, যদি আপনি না জানেন, আপনি কি খুঁজছেন। হ্যাঁ, বড় সাইজের সাইট ও ভিজিটর বেড়ে গেলে ভিপিএস হোস্টিং বেস্ট চয়েজ হতে পারে, কিন্তু সাইটের ভিজিটর বেড়েছে এর মানেই যে ভিপিএস ই কিনতে হবে এমনটা কিন্তু নয় সবসময়। হতে পারে ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং এ আপগ্রেড করলেই আপনার সমস্যা দূর হয়ে যাবে, বা ডেডিকেটেড সার্ভার নেওয়ার সময় হয়েছে হয়তো!

ভিপিএস হোস্টিং কেনার আগে অবশ্যই আপনাকে ভিপিএস এর সুবিধা ও অসুবিধা গুলো জানতে হবে, শুধু সাইটের ভিজিটর বৃদ্ধি পেয়েছে তাই যে ভিপিএস কিনতে দৌড়াবেন, এমনটা করার বিশেষ দরকার নাও পরতে পারে!


ভিপিএস হোস্টিং কি?

ভিপিএস (ইংরেজিতে: VPS) — এর পূর্ণ রুপটি হচ্ছে, ভার্চুয়াল প্রাইভেট সার্ভার (Virtual Private Server)! সাধারণ ভাষায় বলতে একটি ফিজিক্যাল মেশিনের মধ্যে সম্পূর্ণ স্বাধীন পার্টিশনকে ভার্চুয়াল সার্ভার বলতে পারেন। আপনার যদি একাধিক ওয়েবসাইট থাকে সেক্ষেত্রে একটি ফিজিক্যাল সার্ভারে একাধিক ভিপিএস তৈরি করা যেতে পারে, যাতে প্রত্যেকটি সার্ভারের ফাইলস, ওএস, সফটওয়্যার ইত্যাদি স্বাধীনভাবে আলাদা রাখা যায়।

এখন ভিপিএস হোস্টিং ও কিন্তু দুই টাইপের হতে পারে, শেয়ারড ভিপিএস হোস্টিং ও ডেডিকেটেড ভিপিএস হোস্টিং! শেয়ারড ভিপিএস হোস্টিং আপনার শেয়ারড ওয়েব হোস্টিং প্ল্যানের মতোই সার্ভার রিসোর্স গুলো অন্য ইউজাদের সাথে ভাগ করা থাকে। কিন্তু ভিপিএস হোস্টিং শেয়ারড হওয়ার পরেও আপনি অনেক অনেক স্বাধীনতা পেতে পারেন ভিপিএস থেকে। আপনার মেশিন ও অ্যাপ্লিকেশনের উপরে আপনার ফুল কন্ট্রোল থাকবে, জাস্ট হার্ডওয়্যার রিসোর্স শেয়ারড হবে। আর ডেডিকেটেড বলতে নিশ্চয় কিছু বুঝানোর দরকার নেই!

ভিপিএস এ আপনি পাবেন যা ইচ্ছা তা করার স্বাধীনতা, কিন্তু সেটা করার সাথে সাথে আপনাকে সবকিছু নিজে থেকেই সেটআপ করতে হবে আর অ্যাপলিকেশন ইন্সটল, অপটিমাইজেশন, সিকিউরিটি এগুলো থাকবে সবই আপনার উপরে!

এখন আপনি যদি ভিপিএস হোস্টিং ও নিতে চান আর ঝামেলা ও না পোহাতে চান, সেক্ষেত্রে আরেক টাইপের সার্ভিস রয়েছে যেটাকে ম্যানেজড ভিপিএস হোস্টিং বলা হয়। এখানে সেটআপ থেকে শুরু করে মেইনটেইন্স, সিকিউরিটি, আপডেট ইত্যাদি আপনার হোস্টিং কোম্পানিই আপনাকে প্রোভাইড করবে। তবে ম্যানেজড ভিপিএস এর দাম একটু বেশি হয়ে থাকে, কেনোনা আপনাকে হোস্টিং কোম্পানি ২৪/৭ সাপোর্ট প্রদান করবে!

ভিপিএস এর সুবিধা ও অসুবিধা

আমি যতোটা সম্ভব এই পোস্টকে ছোট ও সাধারণই রাখার চেষ্টা করবো, যাতে সহজেই ব্যাপার গুলো মগজে ধুকতে পারে। দেখুন, আপনি ভিপিএস হোস্টিং নিন বা ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং, দুটোই কিন্তু নর্মাল শেয়ারড ওয়েব হোস্টিং প্ল্যান এর একটি আপগ্রেড হবে। শেয়ারড ওয়েব হোস্টিং ম্যানেজ করা অনেক সহজ, কিন্তু এতে অনেক রেস্ট্রিকশন রয়েছে। ভিপিএস হোস্টিং কেনার মাধ্যমে আপনি শেয়ারড ওয়েব হোস্টিং এর রেস্ট্রিকশন গুলো দূর করতে পারবেন আবার ডেডিকেটেড সার্ভারের হিউজ বিল থেকেও বেঁছে যাবেন!

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, ভিপিএস হোস্টিং আপনার ওয়েবসাইটের জন্য বা আপনার জন্য কতোটা উপযোগী? চলুন, ভিপিএস শপিং করার পূর্বে এর অসুবিধা গুলো যেনে নেওয়া যাক…!

সুবিধা

ভিপিএস এর বড় সুবিধাই হচ্ছে এটা ফ্লেক্সিবল, আপনার কাছে সার্ভারের অ্যাডমিনিস্ট্রার আক্সেস থাকবে, আপনি ইচ্ছা মতো ওয়েব সার্ভার কনফিগার করতে পারবেন, যা ইচ্ছা তা সফটওয়্যার ইন্সটল করতে পারবেন, আরো অনেক কিছু…

আপনি চাইলে একটি ভিপিএস সার্ভার থেকে একাধিক ওয়েবসাইট হোস্ট করতে পারবেন। যদি আপনার অনেক গুলো ওয়েবসাইট থাকে, সেক্ষেত্রে সকলের জন্য আলাদা আলাদা শেয়ারড হোস্টিং প্ল্যান না কিনে এক ভিপিএস এ সব সাইট হোস্ট করতে পারেন, এতে অনেক খরচ কমে যাবে। আপনি যদি সিপ্যানেল বা যেকোনো ওয়েব হোস্টিং কন্ট্রোল প্যানেল ইন্সটল করেন, সেক্ষেত্রে আপনার আলাদা ওয়েবসাইট গুলোর জন্য আলাদা আলাদা অ্যাকাউন্ট বানাতে পারবেন। আপনার বন্ধু ও পরিবারের জন্য ও হোস্টিং অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। এক কথায়, আপনি নিজেই এক হোস্টিং কোম্পানির মতো আচরণ করতে পারবেন।

অসুবিধা

সাধারণ শেয়ারড হোস্টিং থেকে ভিপিএস হোস্টিং আপনাকে বেশি চার্জ করবে। যেখানে ১ হাজার টাকায় সম্পূর্ণ বছর মেয়াদে শেয়ারড হোস্টিং পেতে পারেন সেখানে মাসেই হয়তো ১ হাজার টাকার বেশি খরচ করতে হতে পারে আপনাকে। আর ভিপিএস এর খরচ আপনার প্রয়োজন আর রিসোর্স অনুসারে আরো বেশি পরে যেতে পারে।

আপনি সার্ভারের অ্যাডমিন আক্সেস পাবেন, এর মানে আপনাকেই সবকিছু ম্যানেজ করতে হবে। আপনি ডেডিকেটেড সার্ভার ইউজ করুন, আর ভার্চুয়াল, আপনার অনেকটা টেকনিক্যাল জ্ঞান থাকা চাই, না হলে কিছুতেই ভিপিএস হোস্টিং আপনার জন্য নয়। সফটওয়্যার আপডেট, সিকিউরিটি, প্যাচ ফিক্সিং, কনফিগ সবকিছুই আপনাকে জানতে হবে!

হ্যাঁ, আপনি ম্যানেজড ভিপিএস হোস্টিং নিলে আপনার নিজে থেকে সার্ভার কনফিগ বা কিছু করারই দরকার পরবে না।

তো আপনার কি ভিপিএস হোস্টিং প্রয়োজনীয়?

আপনি যদি নতুন ব্লগার হয়ে থাকেন, মানে কেবল আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট রান করেছেন, সেক্ষেত্রে ভিপিএস হোস্টিং কোনভাবেই আপনার দরকারি হবে না। আপনার জন্য শেয়ারড হোস্টিং প্ল্যানই বেস্ট চয়েজ হবে। শেয়ারড হোস্টিং সাধারণত বাজেট ফ্রেন্ডলি হয়ে থাকে আর আপনার কোনই টেকনিক্যাল নলেজ লাগবে না সাইট হোস্ট করার জন্য!

কিন্তু যদি আপনার সাইট গ্রো করতে আরম্ভ করে, সেক্ষেত্রে আপনাকে হোস্টিং প্ল্যান পরিবর্তন করতে হতে পারে। নিচের কিছু কারণ থেকে বুঝতে হবে, আপনাকে এবার নতুন প্ল্যান গ্রহণ করার সময় এসেছে!

  • আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ফাস্ট করার জন্য যতো প্রকারের অপটিমাইজেশন রয়েছে সবই অ্যাপ্লাই করার পরেও যদি সাইট স্লো কাজ করে বুঝতে হবে আপনাকে হোস্টিং প্ল্যান পরিবর্তন করতে হবে। যদি আপনার সাইটে বেশি ভিজিটর প্রবেশ করার পরে সাইট অনেক স্লো হয়ে যায়, তবে আপনাকে হোস্টিং পরিবর্তন করতেই হবে!
  • ওয়ার্ডপ্রেসের বেসিক সবকিছু ঠিক থাকার পরেও যদি ৫০০ এরর খুব বেড়ে যায়, এটা সার্ভার আপগ্রেড করার আরেকটি ভালো কারণ হতে পারে।
  • আপনার সাইটে যদি অনেক অ্যাটাক আর ম্যালিসিয়াস ট্র্যাফিক আসতে শুরু করে, অনেক সময় হোস্টিং পরিবর্তনে আপনাকে সাহায্য করতে পারে!

আপনার জন্য ভিপিএস থেকে ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং বেস্ট হতে পারে যদি :—

  • আপনার কোন টেকনিক্যাল জ্ঞান না থাকে আর সার্ভার ম্যানেজ করা নিয়ে আপনার কোন যায় না আসে!
  • সার্ভারে যদি স্পেশাল সফটওয়্যার ইন্সটল করার দরকার না থাকে, ওয়ার্ডপ্রেস ফুল সিকিউরিটি, আপডেট, এগুলো নিয়ে মাথা ঘামাতে না চান!

তো এখন আপনি ভিপিএস হোস্টিং সম্পর্কে সবকিছুই জানেন, এবার সিদ্ধান্ত আপনাকে আপনার প্রয়োজন অনুসারে গ্রহণ করতে হবে! এক্সেলনোড বেস্ট ভিপিএস প্ল্যান গুলো এখানে চেক করতে পারেন!


এই আর্টিকেলটি ভালো লেগেছে? তাহলে আমাদের এক্সেলনোড ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং প্যাকের ও আপনি প্রেমে পরতে বাধ্য! আমাদের ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং সাধারণ হোস্টিং থেকে ১০ গুন বেশি ফাস্ট! সাথে আমাদের ২৪/৭ সাপোর্ট তো থাকছেই! সেরা বাংলা ব্লগে প্রকাশিত আমাদের সম্পূর্ণ রিভিউটি এখানে পড়তে পারেন এবং এখান থেকে আমাদের হোস্টিং প্ল্যান চেক করতে পারেন!

এক্সেলনোড প্রো টিপস গুলো ইনবক্সে পেতে ভুলবেন না!

About the Author: ExelNode

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রবেশ করিয়ে ১ বছর পর্যন্ত ফ্রি ওয়েব হোস্টিং জিতে নিন!

আপনি সফলভাবে সাবস্ক্রাইব করেছেন!