ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের জন্য ফ্রি ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন সেটআপ! [টিউটোরিয়াল]

ফাস্ট ওয়েব সাইট সবার প্রথম চয়েজ! হোক সেটা গুগল আর আপনার সাইটের ভিজিটর। আপনার হয়তো অনেক সুন্দর একটি ওয়েবসাইট রয়েছে, যেখানে হাই কোয়ালিটির ইমেজ ব্যবহার করেছেন, অনেক টেক্সট রয়েছে, যদি ওয়ার্ডপ্রেসে সাইট বানিয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চয় প্ল্যাগইন সেখানে ইন্সটল করে রেখেছেন! —কিন্তু আপনার সাইটের সাথে যতোবেশি কাজ করার চেষ্টা করবেন, সেটা লোড নিতে ততোবেশি দেরি করবে।

আর আপনাকে ওয়েবসাইট ফাস্ট করার জন্য দরকার হবে ওয়েবসাইট অপটিমাইজেশন করার। যদিও ওয়েবসাইট স্পীড অপটিমাইজেশন করার অনেক পদ্ধতি রয়েছে, কিন্তু এই আর্টিকেলে আমি সিডিএন (CDN) (কন্টেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক) ব্যবহার করে ওয়েবসাইট অপটিমাইজেশন করা সম্পর্কে আলোচনা করবো।

ক্লাউডফ্লেয়ার (CloudFlare) — ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য অন্যতম সেরা একটি সিডিএন এবং ফায়ারওয়াল সলিউশন! আপনি ছোট বিজনেস রান করেন? সমস্যা নেই, ক্লাউডফ্লেয়ার আপনার জন্য ফ্রি সিডিএন সলিউশন প্রদান করে, সাথে এদের ফ্রি সিকিউরিটি ফিচার অনেক পাওয়ারফুল! আপনাকে সিডিএনের জন্য আলাদা টাকা খরচ করতে হবে না। তবে আপনার বিজনেস বড় হলে তার জন্য তাদের পেইড সলিউশন ও রয়েছে।

এখন সমসাস হচ্ছে, যারা বিগেইনার রয়েছেন তারা সহজে ক্লাউডফ্লেয়ার তাদের ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের জন্য সেটআপ করতে পারেন না। এই জন্যই এই টিউটোরিয়ালে স্টেপ বাই স্টেপ ভাবে দেখানো চেষ্টা করবো, ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের জন্য ফ্রি ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন কিভাবে সেটআপ করবেন!


সিডিএন কি?

আপনি যে সাইট গুলো ইন্টারনেটের মাধ্যমে ভিজিট করেন সেগুলো কিন্তু ফিজিক্যালি পৃথিবীর কোন কোন না কোন ওয়েব সার্ভারে স্টোর থাকে। ওয়েব সার্ভার গুলো আপনার কম্পিউটারের মতোই কম্পিউটার হয় আর সেখানে বিশেষ সফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকে। এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করে ঐ সার্ভার থেকে কোন পেজ আপনার কম্পিউটারে ডাউনলোড কিভাবে হয়?—কেনোনা ইন্টারনেটে সকল সার্ভার আর ক্লায়েন্ট কম্পিউটার গুলো একই কানেকশন সূত্রে বাঁধা থাকে।

এখন ধরুন, আপনার নিজের একটি ওয়েবসাইট রয়েছে; এখন আপনি নিশ্চয় সেটাকে আপনার কম্পিউটারে হোস্ট করে রাখেন নি, অবশ্যই আপনি কোন ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি থেকে সার্ভার ভাড়াতে নিয়ে সেখানে আপনার সাইটটি হোস্ট করেছেন। এখন আপনার ওয়েব সাইটের সার্ভার লোকেশন পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে হতে পারে, আচ্ছা চলুন ধরা যাক, আপনার ওয়েবসাইটের ফিজিক্যাল সার্ভার লোকেশন অ্যামেরিকাতে। অর্থাৎ, যখন কোন ভিজিটর আপনার সাইটের জন্য ব্রাউজারে রিকোয়েস্ট করে, তখন অ্যামেরিকা থেকে আপনার সাইটের পেজ ইথারনেট ক্যাবল বা ফাইবার অপটিক ক্যাবল বা স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আলোর গতিতে ভ্রমন করে ভিজিটরের কম্পিউটার পর্যন্ত এসে পৌছায়।

যদিও আলোর গতি (১৮৬,০০০ মাইল/সেকেন্ড) অনেক বেশি কিন্তু সেটা তারপরেও লিমিটেড একটি গতি। বিজ্ঞানের অনুসারে কখনোই কোন সিগন্যাল বা কমিউনিকেশন সিস্টেম আলো চেয়ে অধিক গতিতে ভ্রমন করতে পারে না। আর যদি গতি লিমিটেড হয়, এর মানে ভিজিটর কম্পিউটার থেকে সার্ভার কম্পিউটার যতো দূরে হবে, পেজটি ইন্টারনেটে ভ্রমন করে এসে পৌছাতে ততোবেশি সময় লাগবে! এখন আপনার ওয়েব সার্ভার যেহেতু অ্যামেরিকাতে অবস্থিত, তো অবশ্যই অ্যামেরিকাতে আপনার সাইট দ্রুত লোড হবে, কিন্তু এশিয়া থেকে আপনার সাইট স্লো লোড হবে। কেনোনা এশিয়া পর্যন্ত আপনার সাইটের পেজ ভ্রমন করে আসতে অনেক সমুদ্র পার হতে হয়, সাথে অনেক টাইপের কানেকশনের মধ্য হয়ে তবেই আপনার পর্যন্ত পৌছাতে পারে। এখন হতে পারে আপনার সাইট অ্যামেরিকাতে রয়েছে, কিন্তু আপনি যদি বাংলা সাইট তৈরি করেন বা এশিয়াকে টার্গেট করে কোন সাইট তৈরি করেন, সেখানে অবশ্যই এশিয়ান ভিজিটর বেশি থাকবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই ফাস্ট পেজ লোড প্রদান করতে আপনাকে এশিয়ান কোন সার্ভারে সাইট হোস্ট করা বেস্ট হবে।

কিন্তু ধরুন, আপনার সাইটে অ্যামেরিকা থেকেও ভালো ভিজিটর আসে, এশিয়া থেকেও ভালো ভিজিটর আসে, আবার রাশিয়া থেকেও ভালো ভিজিটর আসে, তাহলে আপনি কি করবেন? —বন্ধু, এখানেই প্রয়োজনীয় হয়ে পড়ে কনটেন্ট ডেলিভারি নেটওয়ার্ক বা সিডিএন এর। যখন আপনি আপনার সাইট কোন সিডিএন নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত করে দেন, সেই নেটওয়ার্ক আপনার সাইটের ক্যাশ কপি কালেক্ট করে, আর পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে থাকা সিডিএন সার্ভারে সেগুলোকে জমা করে রাখে। এখন যদি কোন এশিয়ান ভিজিটর আপনার সাইট ভিজিট করতে চান, সেক্ষেত্রে তাকে এশিয়ায় অবস্থিত সিডিএন সার্ভার থেকে পেজ শো করানো হয়, অ্যামেরিকান ভিজিটরকে অ্যামেরিকান সার্ভার থেকে পেজ শো করা হয়। এভাবে যে লোকেশনের ভিজিটর তাকে সেই লোকেশন থেকেই পেজ সার্ভ করানো হয়, ফলে সাইট লোডিং অনেক ফাস্ট হয়ে যায়। ব্যাস, সিডিএন সম্পর্কে এই টুকু জ্ঞানই যথেষ্ট!

ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন এ কি আলাদা ব্যাপার রয়েছে?

প্রথমত ক্লাউডফ্লেয়ার ফ্রিতে যা অফার করছে, মার্কেটে কেউই তা অফার করে না। এরা এই ফ্রি সার্ভিসের জন্য যদি মাসে ৫-১০$ চার্জ ও করে তারপরেও সেটা কমপ্লিটভাবে উপযুক্ত হবে। যাইহোক, তারা যখন ফ্রি দেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েই নিয়েছে, আমাদের ইউজ করতে সমস্যা কোথায় বলুন?

ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন এবং বাজারের আরো সিডিএন গুলো মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে এরা একটু আলাদা স্টাইলে কাজ করে। বেশিরভাগ সিডিএন প্রভাইডার যেমন, স্ট্যাকপ্যাথ (Stackpath CDN) (পূর্বে মাক্স সিডিএন নামে পরিচিত ছিল) আপনার বর্তমান ডিএনএস এর উপরেই কাজ করতে পারে। এরা পুলজোন ক্রিয়েট করে মানে আপনার ওয়েবসাইটেরই হুবহু মিরর কপি তৈরি করে কাজ করে।

অপরদিকে ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন সেটআপ করতে আপনার ডোমেইনকে ক্লাউডফ্লেয়ারে পার্ক করতে হয়, মানে ক্লাউডফ্লেয়ার আপনার সম্পূর্ণ ডিএনএস হ্যান্ডেল করবে। তারপরে আপনার ওয়েব সার্ভার আর ভিজিটরের মাঝখানে ক্লাউডফ্লেয়ার প্রক্সি হিসেবে কাজ করবে। অন্যদিকে যেখানে আলাদা সিডিএন গুলো রিভার্স প্রক্সি আঁকারে কাজ করে।

আলাদা সিডিএন প্রভাইডার গুলো বিশেষ করে আপনার সাইটের স্ট্যাটিক কন্টেন্ট গুলো সার্ভ করার উপরে ফোকাস প্রদান করে, যেখানে ক্লাউডফ্লেয়ার বেটার সিকিউরিটি, ওয়েবসাইট স্পীড অপটিমাইজেশন, অ্যাটাকারদের ব্লক করা ইত্যাদি কাজে ফোকাস প্রদান করে।

ক্লাউডফ্লেয়ারের অসুবিধা

কোন কিছুই ত্রুটির বাইরে নয়, অনেক ক্লায়েন্ট থেকে শোনা যায় ক্লাউডফ্লেয়ার ইউজ করার পরে তাদের সাইটের মেইন পেজের সামনে ক্লাউডফ্লেয়ার অনেক সময় সিকিউরিটি চেক বসিয়ে দেয়, মানে প্রথমে কয়েক সেকেন্ড অপেক্ষা করতে হবে তারপরে আপনার মেইন পেজে ভিজিটর আসতে পারবে। তবে এটা সিকিউরিটির জন্যই ইউজ করা হয়, মানে সন্দেহভাজন আইপি অ্যাড্রেস গুলোতেই এই চ্যালেঞ্জ বসানো হয়। কিন্তু তারপরেও আপনি এতে হয়তো জেনুইন কাস্টমার হারাতে পারেন।

অনেক সময় ক্যাপচা ও লাগিয়ে দেওয়া হয়, যেটা ভিজিটরদের কাছে বিরক্তিকর ব্যাপার হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। তবে এটাও আপনার সাইটের সিকিউরিটির জন্যই একটি ফিচার!

ক্লাউডফ্লেয়ারে ওয়ার্ডপ্রেস সাইট সেটআপ

ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে ক্লাউডফ্লেয়ার ইউজ করা অনেক সহজ, আপনি যদি এক্সেলনোড হোস্টিং কাস্টমার হয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে সিপ্যানেল থেকেই এটা কনফিগ করে নিতে পারবেন। তবে এই টিউটোরিয়ালে আমি ম্যানুয়াল প্রসেসটি দেখাবো, যাতে সকল ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ইউজাররাই এটা সেটআপ করতে পারেন, যায় আসে না আপনি কোন হোস্টিং প্রভাইডার ইউজ করছেন!

তো প্রথমে, ক্লাউডফ্লেয়ারের ওয়েবসাইটে চলে যান আর SIGN UP বাটনটিতে ক্লিক করুন!

নেক্সট পেজে আপনাকে ইমেইল অ্যাড্রেস আর পাসওয়ার্ড সেট করতে হবে, যাতে ক্লাউডফ্লেয়ার আপনার জন্য একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারে। ইমেইল অ্যাড্রেস আর পাসওয়ার্ড প্রবেশ করানোর পরে ‘Create Account’ বাটনটিতে ক্লিক করুন!

এই স্টেপে আপনাকে ডোমেইন যুক্ত করতে হবে, যে ওয়েবসাইটটিতে ক্লাউডফ্লেয়ার সেটআপ করতে যান, জাস্ট সেটার নাম প্রবেশ করাতে হবে এখানে এবং ‘Add Site‘ বাটনটি প্রেস করুন!

নেক্সট স্ক্রীনে আপনাকে প্ল্যান পারচেজ করার কথা বলা হবে, যেহেতু এই টিউটোরিয়ালে ফ্রি প্রসেসটি দেখানো হচ্ছে তাই আমি ফ্রি প্ল্যানটি সিলেক্ট করলাম!

নেক্সট পেজে আপনার ডোমেইনে যুক্ত থাকা সকল রেকর্ড ক্লাউডফ্লেয়ার ফেচ করবে। এর ফলে ডিএনএস চেঞ্জ করে ক্লাউডফ্লেয়ারে চলে আসলেও আপনার ওয়েবসাইট ডাউন থাকবে না, ক্লাউডফ্লেয়ার আগে থেকেই আপনার সার্ভার আইপি চিনবে এবং সেট করে রাখবে। এখন এখানে যেগুলো অরেঞ্জ কালারে থাকবে, সেগুলোর ট্র্যাফিক ক্লাউডফ্লেয়ারের মদ্ধদিয়েই যাবে আর গ্রে কালারে থাকা গুলো ক্লাউডফ্লেয়ার বাইপাস করবে। অবশ্যই খেয়াল রাখবেন, আপনার সাইটের A রেকর্ড বা সাব ডোমেইনের সেক্ষেত্রে CNAME রেকর্ড যাতে অরেঞ্জ কালারে প্রটেক্টেড থাকে!

আপনার ডিএনএস রেকর্ড ভেরিফাই করা হয়ে গেলে, জাস্ট “Continue” বাটনটি প্রেস করে নেক্সট পেজে চলে যান।

এই পেজে আপনাকে ডোমেইনের নেম সার্ভার পরিবর্তন করতে বলা হবে। আপনার ডোমেইন প্যানেলে লগইন করে, এই পেজে শো করা নেম সার্ভারে আপনার ডোমেইনটি পার্ক করতে হবে।

নোটঃ নেম সার্ভার পরিবর্তন হয়ে নতুন নেম সার্ভার অ্যাক্টিভ হতে কিছু সময় লাগতে পারে। কিছু ইউজারের কাছে আপনার ওয়েবসাইট ডাউন ও দেখাতে পারে, আপনাকে বিচলিত হওয়া যাবে না, এটা নর্মাল প্রসেস, এমনিতেই ঠিক হয়ে সবকিছু!

এবার জাস্ট আপনার ডোমেইন প্যানেল লগইন করুন। আলাদা আলাদা ডোমেইন প্রভাইডারের প্যানেল আলাদা আলাদা চেহারার হতে পারে। আপনি যদি এক্সেলনোড থেকে ডোমেইন কিনে থাকেন সেক্ষেত্রে নিচের মতো প্যানেল দেখতে পাবেন! আর সহজেই নেম সার্ভার পরিবর্তন ও করতে পারবেন।

ব্যাস, আপনার কাজ শেষ, আপনাকে এখন কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে, তারপরে ডিএনএস পরিবর্তন হয়ে গেলে ক্লাউডফ্লেয়ার থেকে নিচের সফল ম্যাসেজটি দেখতে পাবেন!

এবার আপনি ড্যাশবোর্ড থেকে নানান সেটিংস গুলো ইচ্ছামতো কনফিগ করতে পারবেন। পরবর্তী এক আর্টিকেলে আমি ক্লাউডফ্লেয়ারের ক্রিটিক্যাল সেটিংস গুলো নিয়ে আলোচনা করবো এবং সঠিকভাবে সবকিছু কনফিগ কিভাবে করবেন তা শিখিয়ে দেবো।

এখন আপনি চাইলে এই পর্যায় পর্যন্তই শেষ করতে পারেন, কিন্তু আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকেই যদি ক্লাউডফ্লেয়ার ক্যাশ কন্ট্রোল করতে চান সেক্ষেত্রে ওয়ার্ডপ্রেসে ক্লাউডফ্লেয়ার প্লাগিন ইন্সটল করতে পারেন। আপনি যদি এক্সেলনোড হোস্টিং ক্লায়েন্ট হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে লাইটস্পীড ক্যাশ প্লাগইন থেকেই ক্লাউডফ্লেয়ার অ্যাকাউন্ট অ্যাড করতে পারবেন, নতুবা আপনাকে ক্লাউডফ্লেয়ার প্লাগইন ইন্সটল করতে হবে!

ওয়ার্ডপ্রেসে ক্লাউডফ্লেয়ার প্লাগইন সেটআপ

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড লগইন করুন, তারপরে ক্লাউডফ্লেয়ার প্লাগইনটি ইন্সটল করে অ্যাক্টিভ করে নিন! কাজ হয়ে গেলে, Settings » Cloudflare ভিজিট করুন ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকে আর প্লাগইনটি এবার কনফিগ করতে হবে!

Sign in here লিংকে ক্লিক করার পরে আপনাকে ক্লাউডফ্লেয়ার ইমেইল অ্যাড্রেস আর API Key প্রবেশ করাতে বলা হবে!

আপনার API Key পাওয়ার জন্য ক্লাউডফ্লেয়ার থেকে নিচের এই স্ক্রীনশটটি অনুসরণ করুন!

এই View বাটনে ক্লিক করলে একটি পপ-আপ আসবে সেখানে পাসওয়ার্ড আর ক্যাপচা ও পূরণ করার কথা বলা হতে পারে। ক্যাপচা পূরণ করা হলে আপনাকে API Key দেখানো হবে!

এবার আবার ওয়ার্ডপ্রেসে ফেরত আসুন আর ইমেইল অ্যাড্রেস ও প্রাপ্ত API Key টি প্রবেশ করান! তারপরে আপনি সফলভাবে প্লাগইনটি সেটআপ করতে সক্ষম হবেন। এখন ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকেই ক্লাউডফ্লেয়ার কন্ট্রোল করতে পারবেন, ক্যাশ পার্জ করতে পারবেন, ব্যান্ডউইথ ইউজেস দেখতে পারবেন, ইত্যাদি!


ব্যাস, এভাবে অনেক সহজেই আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের জন্য ক্লাউডফ্লেয়ার সিডিএন এনাবল করে নিতে পারবেন। সিডিএন আপনার সাইটের ক্যাশকে বিভিন্ন লোকেশনের সার্ভারে স্টোর করে রাখে।

তবে আপনার সাইটটি যদি নিয়মিত বা অনেক বেশি আপডেট করে থাকেন, তবে সিডিএন ব্যবহার না করায় ভালো। কেনোনা এতে আপনার সাইট আপডেট হওয়ার পড়েও বিভিন্ন লোকেশনের ভিজিটর আপনার সাইটের পুরাতন ভার্সনই দেখতে পাবে। সেক্ষেত্রে আপনার ভিজিটর অনুসারে ঐ লোকেশনের সার্ভার নেওয়া বেশি উপযোগী হবে। যদি তারপরেও সিডিএন ব্যবহার করতে চান, অবশ্যই নতুন পোস্ট বা সাইট মডিফাই করার পরে ক্যাশ পরিষ্কার করে নিতে হবে।


এই আর্টিকেলটি ভালো লেগেছে? তাহলে আমাদের এক্সেলনোড ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং প্যাকের ও আপনি প্রেমে পরতে বাধ্য! আমাদের ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং সাধারণ হোস্টিং থেকে ১০ গুন বেশি ফাস্ট! সাথে আমাদের ২৪/৭ সাপোর্ট তো থাকছেই! সেরা বাংলা ব্লগে প্রকাশিত আমাদের সম্পূর্ণ রিভিউটি এখানে পড়তে পারেন এবং এখান থেকে আমাদের হোস্টিং প্ল্যান চেক করতে পারেন!

এক্সেলনোড প্রো টিপস গুলো ইনবক্সে পেতে ভুলবেন না!

About the Author: ExelNode

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রবেশ করিয়ে ১ বছর পর্যন্ত ফ্রি ওয়েব হোস্টিং জিতে নিন!

আপনি সফলভাবে সাবস্ক্রাইব করেছেন!