ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট যেভাবে ইউজ করবেন?

ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট যেভাবে ইউজ করবেন?

আজকের মডার্ন ওয়েবের প্রায় সমস্ত কিছুই ইউজার এক্সপেরিয়েন্সের উপরে নির্ভর করে তৈরি করা। নানান কোম্পানি গুলো প্রতিনিয়ত মিলিয়ন খরচ করছে যাতে গ্রেট ইউজার এক্সপেরিয়েন্স প্রদান করতে পারে। শুধু টাকায় নয়, অগুনতি সময় ও ব্যয় করে এই ইউজার এক্সপেরিয়েন্স বজায় রাখার জন্য। আপনার ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট যতোই রীচ কোয়ালিটির হোক না কেন, যদি সেটা ঠিকমতো পড়তে না পারা যায় বা ফন্ট গুলো সুন্দর না হয়, কোন লাভ নেই!

আপনার যদি ওয়ার্ডপ্রেস সাইট থাকে, সেক্ষেত্রে অনেক সহজেই কিন্তু গুগল ফন্ট ইউজ করে সাইটের রিডিং এক্সপেরিয়েন্স সম্পূর্ণ পরিবর্তন করে ফেলা সম্ভব! এই আর্টিকেলে দেখানো হয়েছে, কিভাবে আপনি গুগল ফন্ট আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের সাথে যুক্ত করবেন এবং সাইটের রীডাবিলিটি এক্সপেরিয়েন্সকে এক অন্য লেভেল প্রদান করবেন!


ওয়ার্ডপ্রেসে গুগল ফন্ট

এখন মনে সবার আগে প্রশ্ন আসতে পারে, গুগল ফন্ট ই কেন ইউজ করবো? — দেখুন, গুগল ফন্ট হচ্ছে একটি লাইসেন্স ফ্রি ফন্ট লাইব্রেরি, এখানে প্রায় ৮৭৭টি ওয়েব অপ্টিমাইজড ফন্ট রয়েছে যেগুলো যেগুলো সম্পূর্ণ ফ্রি এবং অসাধারণ দেখতে এই ফন্ট গুলো। গুগল ফন্ট পছন্দ করা ও অনেক সময়, এদের ওয়েবসাইট থেকে আপনি আগে থেকেই দেখতে পারবেন, আপনি কোন ফন্ট ব্যবহার করলে আপনার টেক্সটটি দেখতে কেমন হবে।

গুগল ফন্ট ইউজ করার কিছু চমৎকার উপকারিতা রয়েছে। একে তো প্রত্যেকটি ফন্ট ফ্রি, শুধু ওয়েবের ক্ষেত্রেই ফ্রি নয় আপনি চাইলে প্রিন্ট ও করতে পারবেন আর কমার্শিয়ালভাবে ব্যবহার ও করতে পারবেন। গুগল ফন্ট গুলো প্রি-হোস্টেড ফন্ট, মানে আপনাকে নিজের সার্ভারে ফন্ট গুলো হোস্ট করতে হবে না, গুগল সার্ভার থেকেই এপিআই সিস্টেমে ফন্ট গুলো ফেচ করবে ব্রাউজার! আর বর্তমানে এমন ওয়েবসাইট খুঁজে পাওয়ায় মুশকিল যারা গুগল ফন্ট ইউজ করছে না, তো বুঝতেই পারছেন, এটা বর্তমানে একটু ট্রেন্ডি ব্যাপারে পরিণত হয়েছে।

ওয়ার্ডপ্রেসে গুগল ফন্ট ইন্সটল

আপনি ম্যানুয়ালভাবেই ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট ইন্সটল করতে পারেন, কিন্তু সেটা মোটেও বিগেনার ফ্রেন্ডলি নয়, আপনাকে গুগল ফন্ট সাইট থেকে স্টাইল কপি করতে হবে তারপরে ওয়ার্ডপ্রেস থিমের functions.php ফাইল এডিট করতে হবে। আর এগুলো করতে গিয়ে কোন আলাদা কোন মুছে গেলে পরতে পারেন আরেক ঝামেলায়। তাই আমার মতে গুগল ফন্ট ইউজ করার বেস্ট পদ্ধতিটি হচ্ছে একটি ফ্রি প্লাগইন ইউজের মধ্যম আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট ইন্সটল করা।

অনেক ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিন্তু আগে থেকেই গুগল ফন্ট সাপোর্টেড হয়, যদি আপনার থিমে আগে থেকেই গুগল ফন্ট সাপোর্ট থাকে, তবে আলাদা করে কোন প্লাগইন বা কিছুই কনফিগ করতে হবে না। তো প্রথমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের ড্যাশবোর্ড লগইন করুন, তারপরে প্লাগইন মার্কেটে চলে যান আর Easy Google Fonts ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইনটি ইন্সটল করে নিন সাইটে!

প্লাগইনটি ইন্সটল করা হয়ে গেলে জাস্ট অ্যাক্টিভ করে নিন! প্লাগইনটি ইন্সটল করে অ্যাক্টিভ করার মাধ্যমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট স্বয়ংক্রিয়ভাবে যেকোনো গুগল ফন্ট ইউজ করার জন্য রেডী হয়ে যাবে। এবার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকে Appearance > Customize এ চলে যান, সেখানে আপনি নতুন একটি মেন্যু আইটেম দেখতে পাবেন, যার নাম, “Typography” — এইটা এই প্লাগইনের ই যুক্ত করা একটা মেন্যু আইটেম!

আপনি প্যারাগ্রাফ, H1 থেকে H6 পর্যন্ত সাইটের নানান অংশে নানান গুগল ফন্ট ইউজ করার সুবিধা পাবেন। আপনি যে সেকশনের জন্য যে গুগল ফন্টটি সিলেক্ট করবেন সে অনুসারে প্রিভিউ স্ক্রীনে আগে থেকেই দেখতে পাবেন, আপনার ফন্টটি দেখতে কেমন লাগছে। তারপরে ইচ্ছা মতো ফন্ট ফ্যামিলি সেট করে ফন্ট সাইজ ঠিক করে পাবলিশ করতে পারেন। যদি ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে কোন ক্যাশিং প্লাগইন ইউজ করেন সেক্ষেত্রে ক্যাশ পার্জ করে নিতে হবে, না হলে ফ্রন্ট এন্ডে ফন্ট অ্যাপ্লাই নাও হতে পারে।

কিছু টিপস

ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট ইউজ করা সত্যিই বুদ্ধিমানের কাজ, এতে সহজেই সাইটের নতুন এক লুক দেওয়া সম্ভব। গুগল ফন্ট লাইব্রেরিতে বাংলা ফন্ট খুব একটা বেশি না থাকলেও ইংরেজি ফন্টের কিন্তু কোন অভাব নেই। যাইহোক, আপনি যদি আগে থেকেই গুগল ফন্ট ইউজ করেন বা এই টিউটোরিয়াল থেকে যদি ইউজ করা শুরু করেন সেক্ষেত্রে আমি কিছু জিনিষ মাথায় রাখতে বলবো;

আপনি যদি একসাথে একই পেজে অনেক গুলো ফন্ট ইউজ করেন, সেক্ষেত্রে সার্ভার থেকে ফন্ট গুলো ডাউনলোড হতে সময় লাগবে আর পেজ রেন্ডার করতেও ব্রাউজার সময় লাগাবে, তাই কম ফন্ট ইউজ করায় বেস্ট হবে। গুগল ফন্ট ইউজ করার সাথে সাথে ওয়েবপেজকে সঠিকভাবে অপ্টিমাইজ করা জানতে হবে, না হলে সাইটের লোডিং টাইম কিছুটা বেড়ে যেতে পারে।

গুগল ফন্ট ফাইল গুলো কিন্তু আপনার সার্ভারে হোস্টেড থাকে না, বরং গুগলের সার্ভার থেকে লোড হয়, অনেক সময় সেটা সাইটের পারফর্মেন্স কিছুটা কমিয়ে দিতে পারে। এই অবস্থায় আপনি যদি সম্পূর্ণ সাইটের ২-৩ টা ফন্ট ইউজ করেন, তো লোকালভাবে  সার্ভারে ও ফন্ট স্টোর করতে পারেন। আর হ্যাঁ, এমন কোন ফন্ট ইউজ করবেন না যেটা আপনার ওয়েবসাইটের ডিজাইনের সাথে মানান খায় না, বা আর্টিকেল পড়তে অসুবিধা হয়।


ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে কাস্টম গুগল ফন্ট ইউজ করার মাধ্যমে অনেক দ্রুত সাইটের লুকিং পরিবর্তন করা যেতে পারে। রিডারদের আরেকটু আলাদা এক্সপেরিয়েন্স দেওয়ার জন্য গুগল ফন্ট ইউজ করা যেতে পারে, জাস্ট আপনার সাইটের জন্য পারফেক্ট গুগল ফন্টটি খুঁজে বের করে সেট করে নিন! তো আপনি কি আপনার সাইটে গুগল ফন্ট ইউজ করেন? আমাদের নিচে কমেন্ট করে আপনার এক্সপেরিয়েন্স শেয়ার করুন!


এই আর্টিকেলটি ভালো লেগেছে? তাহলে আমাদের এক্সেলনোড ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং প্যাকের ও আপনি প্রেমে পরতে বাধ্য! আমাদের ম্যানেজড ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং সাধারণ হোস্টিং থেকে ১০ গুন বেশি ফাস্ট! সাথে আমাদের ২৪/৭ সাপোর্ট তো থাকছেই! সেরা বাংলা ব্লগে প্রকাশিত আমাদের সম্পূর্ণ রিভিউটি এখানে পড়তে পারেন এবং এখান থেকে আমাদের হোস্টিং প্ল্যান চেক করতে পারেন!

এক্সেলনোড প্রো টিপস গুলো ইনবক্সে পেতে ভুলবেন না!

About the Author: ExelNode

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

প্রিমিয়াম ওয়েব হোস্টিং জিতুন ফ্রিতে!

আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রবেশ করিয়ে ১ বছর পর্যন্ত ফ্রি ওয়েব হোস্টিং জিতে নিন!

আপনি সফলভাবে সাবস্ক্রাইব করেছেন!